বৃহস্পতিবার, মে ২৪

অল্পে বাঁচলেন গ্রীনলাইন লঞ্চের দুই শতাধিক যাত্রী!

বিশেষ প্রতিনিধি-

চাঁদপুরে মেঘনা নদীতে বাল্কহেড ও এমভি গ্রীনলাইন-৩ লঞ্চের মধ্যে ধাক্কা লেগেছে। এতে বাল্কহেডটি ডুবে গেছে এবং দুই শতাধিক যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি বিকল হয়ে পড়েছে।

শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে চাঁদপুরের মতলব উপজেলা ষাটনল ও মোহনরপুর এলাকার মাঝামাঝি স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ঢাকা থেকে দুই শতাধিক যাত্রী নিয়ে বরিশাল যাওয়ার সময় লঞ্চটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ডুবে যাওয়ার উপক্রম হয়েছিল। এ ঘটনায় ১৫ থেকে ২০ জনের মতো যাত্রী আহত হয়েছেন। তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নামপরিচয় জানা যায়নি।

এমভি গ্রীনলাইনের ম্যানেজার মো. শামছুল আরেফীন জানান, সকাল আটটায় দুই শতাধিক যাত্রী নিয়ে ঢাকার সদরঘাট থেকে ছেড়ে আসে গ্রীনলাইন-৩। ঘটনাস্থলে এসে দুই পাশে থাকা বেশ কয়েকটি বাল্কহেডের গতিবেগ উল্টাপাল্টা দেখে মাইকিং করে তাদের সরে যেতে বলা হয়। তারপরেও একটি কালো কালারের বাল্কহেডের মাথায় আঘাত লেগে গ্রীনলাইনের ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। এটি দুপুর দুইটায় বরিশালে পৌঁছানোর কথা ছিল।
গ্রীনলাইনের মাস্টার মো. নাছির উদ্দিন জানান, দুপুর একটায় সদরঘাট থেকে গ্রীনলাইন-১ যাত্রীদের উদ্ধার করার জন্য রওয়ানা হয়েছে। এটি যাত্রীদের বরিশাল পৌঁছবে এবং ফেরার পথে গ্রীনলাইন-৩ কে টেনে ঢাকার সদরঘাটে পৌঁছাবে।

চাঁদপুর নৌ-পুলিশের দায়িত্বরত পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালদার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, দুর্ঘটনার পর গ্রীনলাইন-৩ ঘটনাস্থলেই আছে। আর ধাক্কা খেয়ে বাল্কহেডটি নদীতে ডুবে গেছে। বাল্কহেডে থাকা তিনজন সাঁতার কেটে উঠে রক্ষা পায়। নিরাপত্তার জন্য বর্তমানে গ্রীনলাইন-৩ এর নিকট মোহনপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ অবস্থান করছে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *