মঙ্গলবার, জুলাই ১৭

অসহায় মেধাবী ছাত্রীর জন্য সাহায্যের আকুল আবেদন।


একজন গরীব অথচ মেধাবী শিক্ষার্থীর সাফল্যগাথাঁ:
চট্রগামের পশ্চিম পটিয়ার কালারপোল মোহাম্মদ নগর গ্রামের মৌলানা ফকির মোহাম্মদ এর বাড়ির আব্দুল করিম এর ২য় মেয়ে সিদরাতুল মুনতাহা শিকলবাহা সরকারি পিডিবি স্কুল থেকে জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়ে সাধারণ বৃত্তি পেয়েছে। এছাড়াও সে উক্ত এলাকার দৌলতিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পিএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেয়ে সাধারণ বৃত্তি প্রাপ্ত হয়।এছাড়াও সে শহীদ লিয়াকত সহ আরো কয়েকটি বেসরকারি বৃত্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে প্রতিটা স্কুল থেকে বৃত্তিপ্রাপ্ত হয়।

প্রায় তিন কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে সে স্কুলে যাতায়াত করতো,পায়নি কোনো প্রাইভেট পরার মত আর্থিক শক্তি।দরিদ্র পরিবারে জন্ম নিয়েও মুনতাহার মেধা দারিদ্রতাকে ছাড়িয়ে গেছে।কোনরকম সহযোগিতা ছাড়া সে একের পর এক ভালো রেজাল্ট আর সাফল্যের আনন্দ এনে দিয়েছে অসহায় পিতার ঘরে।মুনতাহার পরিবারের আর্থিক অবস্তা করুন।খেয়ে না খেয়ে অনেক সময় স্কুলে যেতে হয়।

মুনতাহা অন্য ছেলে মেয়েদের মত করে চলতে পারে না।কারন দারিদ্রতা তাকে পিছিয়ে রেখেছে।তাই তার পরিবারের আকুতি কেউ কি নাই দেশে। যারা নাকি আমার মেয়ের লেখাপড়া খরচ টুকু সহযোগীতা করে।আমার মেয়ের শেষ আশা টুকু পুরণ করবে।লেখা পড়া খরচের অভাবে মেয়ের পড়াশুনা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে।

তাই তার স্বপ্ন পুরণ করতে দেশের বৃত্তবান দানশীল ব্যাক্তিদের কাছে সাহায্য আবেদন জানান মুনতাহার অসহায় পরিবার।
মুনতাহার একটায় চাওয়া সে উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত হবে।সবার কাছে সে দোয়াপ্রার্থী।কোন সুহৃদয়বান ব্যাক্তি যদি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে মেয়েটার সুন্দর ভবিষ্যৎ স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে আসেন তাহলে এক গরীব পিতার মুখ উজ্জ্বল হওয়ার পাশাপাশি এক মেধাবী শিক্ষার্থী পাবে তার প্রাপ্য অধিকার।

সাহায্য পাঠানোর জন্য যোগাযোগ করুন –

নয়ন- ০১৮১১১১২৯২৯

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *