বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৮

ইনচার্জ শফিকুল ইসলামের সাফল্য বগুড়ার উপশহর ফাঁড়ি মাদক ব্যবসায়ী ও অপরাধীদের জন্য একটি আতঙ্কের নাম

সাজেদুর আবেদিন-
বগুড়া সদর থানার অন্তর্গত উপশহর পুলিশ ফাঁড়ি। যা বর্তমানে অপরাধীদের জন্য একটি আতংকের নামে পরিণত হয়েছে। ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর শফিকুল ইসলাম যোগদান করার পর থেকেই কমতে শুরু করেছিলো অপরাধের সংখ্যা। আর চলতি মাদক বিরোধী অভিযানের ফলে এবং চিহ্নিত মাদক বিক্রেতারা গ্রেফতার হবার কারণে প্রায় শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে মাদক ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম। ছোট খাটো কিছু ঘটনা ছাড়া ঘটেনি বড় ধরনের কোন অপরাধ। অনেকে আবার এলাকা ছেড়ে পালিয়ে আত্মগোপন করেছে, কেউবা আবার গেছে তাবলীগ জামায়াতে।

ফাঁড়ি সূত্রে জানা যায়, গত মে মাসে উপশহর পুলিশ ফাঁড়ি টিম আইন শৃংখলা রক্ষার পাশাপাশি শুধু মাত্র মাদক বিরোধী অভিযানেই গ্রেফতার করেছে ফাঁড়ি এলাকার ২৩ জন চিহ্নিত ও তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ীদের। রক্ষা পায়নি মাদক ব্যবসায় নিয়োজিত পিতা- কন্যা, স্বামী-স্ত্রী কিংবা খুচরো বিক্রেতাও। জব্দ করা হয়েছে মাদক বিক্রির কাজে ব্যব্হৃত ২টি মোটর সাইকেল। উদ্ধার করা হয়েছে প্রায় ১ হাজার পিস ইয়াবা ও ৫০ বোতল ফেন্সিডিল। এছাড়াও মাসের শেষ দিকে চোরাচালানের সময় উদ্ধার করা হয়েছে প্রতœতাতিœক নিদর্শন মূল্যবান কষ্টিপাথরের মূর্তীর অংশবিশেষ। সাথে আটক করা হয়েছে চোরাকারবারীকেও। আটককৃত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে ১৫টি মামলা।

এব্যাপারে ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর শফিকুল ইসলাম এর সাথে কথা বললে তিনি জানান,“ মাদক ব্যবসায়ীদের কোন পরিচয় নেই। তাদের একমাত্র পরিচয় তারা অপরাধী। আর অপরাধীদের কোন দল নেই। আমার ফাঁড়ি এলাকার মধ্য যারাই মাদক কিংবা যেকোন অপরাধের সাথে যুক্ত হবে তাদেরকেই আইনের আওতায় আনা হবে। এছাড়া আমি ও আমার টিম যেন চলতি মাসে আরো ভালো কর্মদক্ষতা দেখাতে পারি তার আপ্রান চেষ্টা করবো”।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *