বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৮

এই ঈদে পথ শিশুদের মুখে হাসি ফোটাতে চায় “পথেরফুল সংস্থা”

বিশেষ প্রতিনিধি-
পথশিশু সমাজের এক নির্মম বাস্তবতা!
নানা কারণে অনেক কম বয়সেই দুর্ভাগ্যে বেড়ে ওঠা এই সকল বাচ্চাদের দেখতে হয় মানুষ্য সৃষ্ট এই পৃথিবীর নির্মম নিষ্ঠুরতা!
মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদ যা প্রতি বছর মাত্র একবার ই আসে।
অথচ সেই ঈদে ও জোটেনা কোন একটি ভালো কাপড়।

এই ঈদে তাই এই সকল বাচ্চাদেরকে একটি মাত্র নতুন জামা উপহার দেয়ার জন্যই পদক্ষেপ নেয়া শুরু করেছে সংগঠন টি।

সংস্থাটির পরিচালকের বক্তব্য তুলে ধরা হলো –
আমরা সমাজসেবক পথের ফুল সংস্হার, পরিবার সেইসব পথ শিশুর মুখের হাসি ফোটাতে তাই কাজ করছি! হ্যা এই ‘হাসি মুখ’ দেখা ই হচ্ছে আমাদের উদ্দেশ্য।
যা কোনো কিছুর বিনিময়েই কিনা যায় না,সত্যিই যায়না!
আমরা সবাই কি পারি না ঈদের শপিং থেকে ৫০/১০০/২০০ টাকা বাঁচিয়ে তাদের মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলতে ?
হয়তো সুবিধাবঞ্চিত এই শিশুগুলো ড্যাব ড্যাব করে তাকিয়ে থাকবে,
আমাদের হাতের রং বেরং এর শপিং ব্যাগের দিকে।তার থাকা-খাওয়ারই কোন ঠিক নেই।
আবার তো ঈদের কাপড়!!!

চট্টগ্রামের অত্যন্ত প্রান্তিক বস্তিতে আমরা এই সকল মাসুম বাচ্চা গুলোর জন্য কাজ করে চলেছি। আমাদের পথের ফুল সংস্হার সকল বন্ধুরা মিলে প্রতি বছর অসহায় পরিবার ও বস্তিতে কমপক্ষে ২০০ জন অবহেলিত বাচ্চাদের জন্য ঈদের জামা, কাপড় দিয়ে থাকি। ! তবে তাদের করুণ দৃষ্টি আমাদের সকলের হৃদয় কেড়েছে ।

তাই সমাজের সকল শ্রেণীর মানুষদের কাছে অনুরোধ আপনারা দয়াকরে তাদের জন্য আপনাদের সাহায্যের হাত টি বাড়িয়ে দিন??
মাত্র ২০০/৫০০/১০০০/৫০০০ যার যা সামর্থ্য আছে দয়াকরে এগিয়ে আসুন।
সমাজের দয়াবান, ব্যবসায়ী,চাকুরীজীবি সবার প্রতি আহব্বান জানাই।
আপনারা আমাদের মোবাইলে ও যোগাযোগ করতে পারবেন।

সহযোগিতার জন্যঃ
পথেরফুল সংস্হা
আমজাত হোসেন : (বিকাশ নাম্বার ও রকেট)- ০১৮৬১২২৯৮৯৯
জাহিদ হোসেন (বিকাশ ও রকেট)-০১৮৩৭২৪৪৪৯১;

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *