রবিবার, মে ২৭

কুমিল্লায় গৃহবধূকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ

সিএন নিউজ কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ-

কুমিল্লা বরুড়ায় ফেরদৌসি আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধূকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সে বরুড়ার আদ্রা ইউনিয়ন কাকৈরতলা গ্রামের কাউসার পাটোয়ারির স্ত্রী। তার আব্দুল্লাল আল মামুন নামে আড়াই মাসের একটি শিশু সন্তান রয়েছে। সোমবার সকালে শ্বশুরবাড়ি থেকে মোবাইল ফোনে করে পরিবারকে জানায়, ফেরদৌসির আত্মহত্যা করেছে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ফেরদৌসি আক্তার বরুড়া ভাউকসার ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে। দেড় বছর আগে কাকৈরতলা গ্রামের কাউসার পাটোয়ারির সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তাকে যৌতুকে দাবিতে শাশুড়ী নানা ভাবে নির্যাতন করতো। ফেরদৌসির বাবার বাড়ি থেকে কেউ গেলে নানা ভাবে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতো। গত দেড় বছরের মেয়ের আত্বীয়-স্বজন থেকে নানা কথা বলে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নেই ফোদৌসির শ্বশুরবাড়ির পরিবার এবং বিয়ের সময় ৬০ হাজার টাকা যৌতুক নেয়।

এ ঘটনায় ফেরদৌসির স্বামী কাউসার পাটোয়ারিকে ফোন দিলে বড় ভাবী ফোন রিসিভ করে। তিনি বলেন, কাউসার অসুস্থ। এখন কথা বলতে পারবে না। ফেরদৌসি সম্পর্কে জানতে চাইলে বলেন, ফেরদৌসির সাথে কিছুই হয়নি । এখন আপনাদের সাথে কথা বলার সময় নেই বলে লাইন কেটে দেয়।
এ বিষয়ে ফেরদৌসি আক্তারের ভাই সাইদি জানান, আমার বোনকে ৭-৮ মাস আমাদের বাড়িতে আসতে দেওয়া হয়নি। বিশেষ করে তার শাশুড়ি তাকে নানা ভাবে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করতো। প্রায় সময় মা’কে ফোন করে আমার বোন কান্না কাটি করে এসব কথা বলতো। সকালে আমাদের ফোন দিয়ে বলছে, আমার বোন আত্মহত্যা করেছে। আমার বোনকে তারা পরিকল্পনা করে হত্যা করে লাশ ঝুঁলিয়ে রেখেছে। আমি উক্ত ঘটনার সঠিক তদন্ত পূর্বক হত্যাকারীদের বিচার চাই।

এ বিষয়ে আদ্রা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফজলু বলেন, মেয়েটি গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আমি পুলিশকে খবর দিয়েছি।

এদিকে ফেরদৌসির পরিবার উক্ত ঘটনার সঠিক তদন্তের দাবিতে ভাউকসার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈয়দ মাসরুর হকের নিকট যায়। এ বিষয়ে তিনি বলেন, সকালে আমার কাছে তারা এসেছে। তাদের দাবি মেয়েকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে। তাই আমি বরুড়া থানার ওসিকে ফোন দিয়ে বিস্তারিত জানানোর পর তিনি পুলিশ পাঠিয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বরুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজম উদ্দিন মাহমুদ জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এটি হত্যাকান্ড নাকি আত্মহত্যা বিষয়টি তদন্ত শেষে জানা যাবে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *