বৃহস্পতিবার, জুন ২১

খেলার মাঠে মেলা কেনো

বাসার পাশে বিশাল এক মাঠ। পড়াশোনা শেষ করে বিকেলে ফুটবল,ক্রিকেট আরো কত রকম খেলা করতাম। বন্ধুদের সাথে হতো সে কি মজা! সন্ধ্যা হলে বাসায় এসে আবার পড়তে বসা। কিন্তু এখন আর হয়ে ওঠেনা । মাঠ গুলো আছে ঠিকই আগের মতো বন্ধুরাও আছে । কিন্তু খেলা নেই। পড়াশোনা শেষ করে এখন মানুষের হই হই শব্দ শুনি। সন্ধ্যায় বাসায় এলে পড়তে ভাল লাগে না আগের মতো। মাথা ব্যাথা কেমন যেন অানমনা আমি। মাঠে এখন মেলা। বছরে কতবার যে হয় তার হিসেব কে রাখে। বৈশাখী মেলা, লিচুর মেলা, মাছের মেলা আর কত মেলা। মাঠ এখন আর খেলার জন্য নেই যেন মেলার জন্য করা হয়েছে। ছেলেরা বাসায় বসে ইন্টারনেট,ফেসবুক, ইউটিউবে সময় কাটায়। এর ফলে আমাদের সৃজনশীলতা ব্যাহত হচ্ছে।

অন্যদিকে অপসংস্কৃতির দিকে ধাবিত হচ্ছে তরুণ সমাজ। আবার নতুন করে জঙ্গি? এক কুচক্রী ওতোপেতে আছে কখন আমাদের বিপদগামী করবে। আর মাদকতা একটা অভিশপ্ত নাম । আমাদের মতো হাজারো তরুণ তরুণীকে হাতছানি দিয়ে বেড়াচ্ছে। তবে আমরা যে বিপদগামী হচ্ছি তাতে আমরা মোটেও বোধগম্য নই।এসব থেকে বাঁচার উপায় হলো খেলাধুলা, সুস্থ সংস্কৃতির চর্চা করা। বারবার মাঠ প্রাণে তাকাই। কবে এসব থেকে আমাদের মাঠ মুক্তি পাবে। আর আমরা আগের মতো কবে বন্ধুদের সাথে খেলা করতে পারব সেই অপেক্ষায় আজো প্রহর গুনছি।

মাসুম সরকার আলভী
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *