শনিবার, আগস্ট ১৮

ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী নিহত

রুহিয়া প্রতিনিধিঃ
ঠাকুরগাঁওয়ে মাদক মামলার এক আসমি গ্রেপ্তার হওয়ার পর পুলিশের কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে।

জেলার পুলিশ সুপার ফারহাত আহমেদ বলছেন, বুধবার ভোরে উপজেলার ঠাকুরগাঁও-পীরগঞ্জ সড়কের বনবাড়ি এলাকায় গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে।

নিহত আক্তাফুল (৩৮) বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড় পলাশবাড়ী ইউনিয়নের পারুয়া গ্রামের ভেলসা মোহাম্মদের ছেলে। তার বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর হামলা, গরু চুরির পাশাপাশি মাদক আইনের ১৯টি মামলা রয়েছে থানায়।

পুলিশ সুপার বলেন, মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে পুলিশ আক্তাফুলকে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাড়ির পাশের বাঁশঝাড় থেকে ১০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

“জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, বোতলগুলো ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার এক মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে কিনে এনেছে সে।”

ওই তথ্যের ভিত্তিতে বালিয়াডাঙ্গী থানা পুলিশের একটি দল রাত ৩টার দিকে আক্তাফুলকে নিয়ে পীরগঞ্জ উপজেলায় রওনা হয় বলে জানান পুলিশ সুপার।

“পথে ঠাকুরগাঁও-পীরগঞ্জ সড়কের বনবাড়ি এলাকায় পৌঁছালে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। প্রায় ২০ মিনিট গোলাগুলির এক পর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ী আক্তাফুল নিহত হয়।”

ঘটনাস্থল থেকে পাঁচটি ককটেল ও বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র উদ্ধারের কথা জানিয়েছে পুলিশ।

ফারহাত আহমেদ বলছেন, এ অভিযানে বালিয়াডাঙ্গীর ওসি এবিএম সাজেদুল ইসলাম ও উপ-পরিদর্শক মো. খায়রুজ্জামান আহত হওয়ায় তাদের ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *