বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৯

দেবরকে বাঁচাতে গিয়ে ‘বিয়ের পিঁড়িতে ভাবী’, অতঃপর পুলিশের হাতে আটক!

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া গ্রামের মঈন উদ্দিনের ৮ম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে ময়না খাতুনের সঙ্গে উপজেলার মাটিকোড়া গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে তরিকুল ইসলামের বিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছিল। যথাসময়ে বরযাত্রীরা সেখানে আসেন। বাল্য বিয়ের খবরটি প্রশাসনের কানে গেলে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে। বিষয়টি টের পেয়ে কনের বাবার অনুরোধে বরযাত্রী হিসেবে আগত বরের ভাবী রিনা খাতুনকে দ্রুত কনে সাজিয়ে বিয়ের আসরে বসিয়ে রাখা হয়। রিনা বরের সহোদর ভাই আব্দুল জলিলের স্ত্রী। সোমবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে উল্লাপাড়ার পংরৌহা গ্রামে।

পুলিশ জানায়, ঘটনাটি ফাঁস হয়ে গেলে রিনা খাতুনকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এ সময় বিয়ের আসরের অন্যরা পালিয়ে যান। বর্তমানে রিনা খাতুন থানা হাজতে আছেন। ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আরিফুজ্জামান জানান, সমাজ থেকে বাল্য বিয়ে বন্ধে প্রশাসন কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণে পিছপা হবে না।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *