শুক্রবার, আগস্ট ১৭

বাংলাদেশ এখন আর দুর্বল প্রতিপক্ষ নয়, তারা জিততে শিখে গেছে

অনলাইন ডেস্ক-

৩২টি টেস্ট সেঞ্চুরির মালিক, সাবেক নম্বর ওয়ান ব্যাটসম্যান ওয়াহ প্রিয়.কমের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া দলের বল টেম্পারিং, বাংলাদেশের ক্রিকেট, বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা ও রাগবি নিয়ে অনেক কথাই বলেছেন। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন শান্ত মাহমুদ।

প্রশ্নঃ এবার বাংলাদেশ প্রসঙ্গে দুই-একটা প্রশ্ন। বাংলাদেশের ক্রিকেট দেখে কী মনে হয়? এই বাংলাদেশ নিয়ে আপনার মূল্যায়ন কী?

স্টিভ ওয়াহ: অস্ট্রেলিয়া কিন্তু মাত্র কয়েক দিনে অস্ট্রেলিয়া দল হয়ে ‍উঠেনি, এতগুলো বিশ্বকাপ জেতেনি। ক্রিকেট ব্যাপারটাই দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার ও বাস্তবায়নের। হয়তো সেটারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ বড় রাস্তায় উঠে গেছে। সেই রাস্তায় হাঁটতে হাঁটতে বাংলাদেশ দৌড়াতেও শুরু করবে বলে আমার বিশ্বাস। তারা ঘরের মাঠে বেশ শক্ত দল।

এই ব্যাপারটাই বাইরের মাঠে নিয়ে যেতে হবে। আর পেস বোলিং করতে ও খেলতে শিখতে হবে। শুধু স্পিন দিয়ে লড়াই করে যাওয়া সম্ভব নয়। আমি সেভাবে বাংলাদেশ ক্রিকেটের খোঁজ না রাখতে পারলেও এই ব্যাপারগুলো অন্তত জানি।

প্রশ্নঃ অস্ট্রেলিয়া যখন বাংলাদেশে যেতে চাচ্ছিল না, বাংলাদেশের ক্রিকেটভক্তরা বলছিল, হারের ভয়ে অস্ট্রেলিয়া আসছে না। কিছু বলবেন এ নিয়ে?

স্টিভ ওয়াহ: হা-হা-হা, আসলেই নাকি? আমার মনে হয় না, তারা মন থেকে এমন বলেছে। আর সমর্থকদের এমন কথা ধরে লাভ নেই। সবাই নয়, তাদের মধ্যে অনেকেই এমন কথা বলে। তবে হ্যাঁ, বাংলাদেশ এখন আর নিশ্চয়ই দুর্বল প্রতিপক্ষ নয়। তারা জিততে শিখে গেছে।

আমার মনে হয় না কোনো দলই এখন বাংলাদেশকে হালকাভাবে নেয়। বিশেষ করে ঘরের মাঠে তাদের যারা দুর্বল ভাববে, তারা ভুল করবে। তবে তাদের টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে আরও ভাবা উচিত। তরুণ খেলোয়াড়দের সেভাবেই তৈরি করে তোলা উচিত।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে নিয়ে আপনার মূল্যায়ন কী?

স্টিভ ওয়াহ: মাশরাফি যতটা ভালো বোলার, তার চেয়ে ভালো একজন নেতা। এই ব্যাপারটিই তাকে এবং বাংলাদেশ দলকে সাফল্য এনে দিয়েছে বলে আমার মনে হয়। একটি দেশের ভার একজন যোগ্য নেতার হাতে থাকা কতটা জরুরি, এটা সবাই বুঝতে পারে। মাশরাফি সেই কাজটাই করে দেখিয়েছে। তাকে সত্যিকারের নেতা বলা ভুল হবে না।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *