সোমবার, অক্টোবর ১৫

মতলব উত্তরে হঠাৎ অসুস্থ শতাধিক শিক্ষার্থী : হাসপাতালে ৪১

বিশেষ প্রতিনিধি-
চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার বাগানবাড়ী ইউনিয়নের ধনাগোদা-তালতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শতাধিক ছাত্রছাত্রী গতকাল সোমবার বেলা ১১টার দিকে হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাদের মধ্যে অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থীকে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল ও স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয় ৪১ জনকে। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সেখান থেকে তিনজনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে উপজেলায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

ধনাগোদা-তালতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ফারুকুল ইসলাম জানান, জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সময় ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিক তাকে শ্রেণিকক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। এর পর ক্লাস চলাকালে আরও দুইজন অসুস্থ হয়। বেলা ১১টার পর পর্যায়ক্রমে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শতাধিক ছাত্রছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করে স্কুল ছুটি দেওয়া হয়। স্কুল ছুটির পর কেউ পথে, আবার কেউ বাড়িতে যাওয়ার পরও অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন যানবাহনে অসুস্থদের মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ছাড়াও পারিবারিকভাবে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য অভিভাবকরা শিক্ষার্থীদের নিয়ে যান বলে জানান প্রধান শিক্ষক।

মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা শিক্ষার্থীরা হচ্ছে- আবিরা সুলতানা (১৪), সুমাইয়া আক্তার (১৫), আয়েশা (১৪), উরমি আক্তার (১২), মিতু (১৪), নাজমা (১৪), তৃপ্তি (১২), সাথী (১৬), মনিরা (১৬), বৃষ্টি (১৫), শিখা (১৩), হাওয়া (১৭), খাদিজা (১৭), সুর্বণা (১২), সানজিদা (১৬), সামিয়া (১৩), ফাতেমা (১৬), রাফিয়া (১২), তামান্না (১৪), মিম (১৪), খাদিজা (১৮), লিমা (১৫), সামিয়া (১৩), মারিয়া (১৪), মাজহারুল (১২), হীরামনি (১২), মারিয়া (১৫), মুন্নি (১৫), পার্বতী (১৬), জিহাদ (১৪), নিপা (১৩), মাহমুদা (১৬), ইমন (১২), রূপালী (১৬) ও সুমাইয়া (১৪)।

মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. শংকর কুমার সাহা বলেন, চিকিৎসা দেওয়ার পর সুস্থ হয়ে ওঠে ৩৫ জন। গুরুতর আহত তিনজনকে ঢাকায় পাঠানো হয়। এ ছাড়াও আরও ৩ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, কোনো রোগ চিহ্নিত করা যায়নি।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *