সোমবার, জুন ১৮

মেসির জার্সি পোড়ানোর হুমকি দিয়েছে ফিলিস্তিনের প্রতিবাদী তরুণরা

অনলাইন ডেস্ক :-

আগামী রোববার ইসরায়েলের সঙ্গে বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা রয়েছে আর্জেন্টিনার। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ইসরায়েলের হাইফাতে। কিন্তু পরবর্তীতে ভেন্যু বদলে তা পশ্চিম জেরুজালেমের টেডি কোলেক স্টেডিয়ামে নিয়ে গেছে ইসরায়েল। এই বিষয়টি কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না অসহায় ফিলিস্তিনিরা।

ফিলিস্তিনিরা মনে করছে, ইসরায়েল এই ম্যাচটা জেরুজালেমে আয়োজন করে বিষয়টাকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করার চেষ্টা করছে। স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের রাজধানী এই জেরুজালেম। নির্যাতন, নিপীড়ন, হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে অসহায় ফিলিস্তিনিদের তাড়িয়ে দিয়ে আর্জেন্টিনার মতো দলের বিপক্ষে সেখানে ম্যাচ আয়োজন করতে চাচ্ছে ইসরায়েল, যাতে স্বীকৃতির ব্যাপারটা পোক্ত হয়। পুরো ব্যাপারটাই ঘৃণ্য রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ফিলিস্তিনিদের আবেগের সঙ্গে জড়িত।

ফলে আর্জেন্টিনাকে সেখানে খেলতে না যাওয়ার অনুরোধ করে আসছেন ফিলিস্তিনিরা। বিশেষ করে বিশ্বের সেরা ফুটবলার মেসির কাছে ফিলিস্তিনিরা মিনতি করে আসছে সেখানে খেলতে না যাওয়ার জন্য। অনেকে মনে করছেন, ইসরায়েল সাধারণ ফিলিস্তিনিদের ওপর যে হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছে তার মধ্যে এই ম্যাচ খেলা মানে সেই হত্যাযজ্ঞকে স্বীকৃতি দেওয়া। সেই কারণেই মেসি এবং আর্জেন্টিনার প্রতি অনুরোধ ফিলিস্তিনিদের।

ফিলিস্তিন ফুটবল ফেডারেশনের প্রধান জিব্রিল রাজুব মেসির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন, ‘মেসি তুমি ইসরায়েলে খেলতে এসো না। ইরায়েলিরা ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে যে জাতি বিদ্বেষের আগুন জ্বালিয়েছে ইসরায়েলে খেলতে এসে তার বৈধতা তুমি দিও না- এটা আমাদের অনুরোধ।’
মেসি যদি এই অনুরোধ না রাখেন তবে মুসলিম বিশ্বের তরুণদের তার জার্সি ও ছবি পুড়িয়ে দেওয়ার জন্য বলেছেন রাজুব। তিনি বলেন, ‘তিনি (মেসি) আমাদের অনুরোধ না শুনলে মুসলিম বিশ্বের সব তরুণদের বলব, তার ছবি ও জার্সি পুড়িয়ে ফেলতে। মেসিকে বর্জন করতে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *