রবিবার, জুলাই ২২

শৈত্যপ্রবাহ কিছুটা প্রশমিত হলেও সহসা যশোর-খুলনাঞ্চল থেকে যাচ্ছে না ঠান্ডা

 

স্টাফ রিপাের্টার:

চলতি শৈত্যপ্রবাহ এখন উত্তরাঞ্চল ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে স্থির হয়ে আছে। মূলত এ এলাকার ওপর দিয়েই প্রভাব বিস্তর করে আছে। ঘনকুয়াশার প্রভাবে দিনে সূর্যালোক কম পাওয়ায় যশোর ও খুলনাঞ্চলে তাপমাত্রা বাড়ছে না। যশোরে গত চারদিনই দেশের সর্বনিন্ম তাপমাত্রা ৭ডিগ্রির নীচে বিরাজ করায় ওই এলাকায় প্রচন্ড ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। এই শৈত্যপ্রবাহ খুলনা পর্যন্ত বিস্তৃত। তবে ঘনকুয়াশায় খুলনার আধাবেলা সূর্যের মুখ দেখা না যাওয়ায় এখানেও তাপমাত্রা বাড়ছে না। খুলনার তাপমাত্রা সামান্য বাড়লেও তা শৈত্যপ্রবাহের কারণে গায়ে লাগছে না। ফলে তীব্রশীত অনুভূত হচ্ছে। এ অবস্থা আরও কয়েকদিন থাকতে পারে এছাড়া মাঘ মাসের ১৫তারিখ পর্যন্ত দেশের চুয়াডাঙ্গা যশোর ও খুলনা অঞ্চলে শীতের প্রভাব থাকবে।

এদিকে আবহাওয়া বিভাগ জানায়, দেশের বিভিন্ন স্থানের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া শৈত্য প্রবাহ থেকে আরও কিছু এলাকা প্রশমিত হতে পারে। এছাড়া অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

এদিকে, সাতক্ষীরা, যশোর, কুষ্টিয়া, টাঙ্গাইল, মাদারীপুর ও গোপালগঞ্জ অঞ্চলসহ রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং দেশের কোথাও কোথাও তা দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। গতকাল সকাল ৬ টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতা ছিল ৯৬ শতাংশ। আবহাওয়া চিত্রের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *