সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৪

শ্রমিক জনতার আন্দোলনের ফসল আজকের এ মে দিবস।

আজ মহান মে দিবস, মে দিবস উপলক্ষে সারা বিশ্বের সকল শ্রমিক জনতার প্রতি রইলো লাখো সালাম ও অবিরাম ভালোবাসা, আজকের এ দিনটি ঐতিহাসিক একটি দিন, যা বিশ্বের মানচিত্রে ওমর হয়ে থাকবে আজীবন।
মাঠে-ঘাটে, কলকারখানায় খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ে রক্তঝরা সংগ্রামের গৌরবময় ইতিহাস সৃষ্টির দিন। দীর্ঘ বঞ্চনা আর শোষণ থেকে মুক্তি পেতে ১৮৮৬ সালের এদিন বুকের রক্ত ঝরিয়েছিল শ্রমিকরা।
এদিন শ্রমিকরা আট ঘণ্টা কাজের দাবিতে যুক্তরাষ্ট্রের সব শিল্পাঞ্চলে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল। সে ডাকে শিকাগো শহরের তিন লক্ষাধিক শ্রমিক কাজ বন্ধ রাখে। শ্রমিক সমাবেশকে ঘিরে শিকাগো শহরের হে মার্কেট রূপ নেয় লাখো শ্রমিকের বিক্ষোভ সমুদ্রে। এক লাখ ৮৫ হাজার নির্মাণ শ্রমিকের সঙ্গে আরো অসংখ্য বিক্ষুব্ধ শ্রমিক লাল ঝাণ্ডা হাতে সমবেত হয় সেখানে। বিক্ষোভের এক পর্যায়ে পুলিশ শ্রমিকদের ওপর নির্বিচারে গুলি চালালে ১০ শ্রমিক প্রাণ হারান।

অন্যদিকে হে মার্কেটের ওই শ্রমিক বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে সারাবিশ্বে। গড়ে ওঠে শ্রমিক-জনতার বৃহত্তর ঐক্য। অবশেষে তীব্র আন্দোলনের মুখে শ্রমিকদের দৈনিক আট ঘণ্টা কাজের দাবি মেনে নিতে বাধ্য হয় যুক্তরাষ্ট্র সরকার। পরে ১৮৮৯ সালের ১৪ জুলাই প্যারিসে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক শ্রমিক সম্মেলনে শিকাগোর রক্তঝরা অর্জনকে স্বীকৃতি দিয়ে ওই ঘটনার স্মারক হিসেবে ১ মে ‘আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংহতি দিবস’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ১৮৯০ সাল থেকে প্রতি বছর দিবসটি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ‘মে দিবস’ হিসেবে পালন করতে শুরু করে।

লাখো শ্রমিক জনতার আন্দোলনের ফসল আজকের এ মে দিবস। তবুও আজ অনেক খেটে খাওয়া শ্রমিক তার নায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, পাচ্ছে না সময় মত বেতন ভাতা। নির্যাতনের শিকার হচ্ছে বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে।
এবারের মে দিবসের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘শ্রমিক-মালিক ভাই ভাই, সোনার বাংলা গড়তে চাই।
প্রতিপাদ্য অনুযায়ী যদি মালিক শ্রমিকদের এ বন্ধন অটুট থাকে তা হলে মালিক শ্রমিকদের মধ্যে যে একটি বৈষম্য তা অনেকটাই দূর হবে গড়া সম্ভম হবে সোনার বাংলাদেশ। সকল মালিক শ্রমিক আপন ভাইয়ের মত মিলে মিশে থাকুক এটাই একান্ত প্রত্যাশা।

লেখক:-
রবিউল হোসাইন রাজু
সম্পাদক ও প্রকাশক
সিএন নিউজ২৪.কম

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *