সোমবার, অক্টোবর ১৫

সিলেটে বর্ষবরণে মেতে উঠেছে সবাই

বিশেষ প্রতিনিধি:

সিলেটে সাংস্কৃতিক কলেজে চলছে বাংলা বর্ষবরণ ১৪২৫। ‘বিশ্বায়নের বাস্তবতায় শিকরের সন্ধান’ শিরোনামে প্রভাতী গানের মাধ্যমে ভোর সোয়া ছয়টায় শুরু হয় অনুষ্ঠান। ছায়ানটে মূল অনুষ্ঠান চলছে। এর পাশাপাশি অনেকেই নিজেদের মতো করে সাংস্কৃতিক কলেজে বৈশাখী উৎসবে মেতেছেন। পুরাতনকে বিদায়, আর নতুনকে স্বাগত জানাতে ভোর থেকে হাজারো মানুষ সাংস্কৃতিক কলেজে ভিড় করেন। এই বর্ষবরণ ঘিরে সাংস্কৃতিক কলেজে পাশেই পান্তা-ইলিশের দোকান বসেছে।

সকাল থেকে পান্তা-ইলিশ খেতে ভিড় জমেছে সেখানে। লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে পান্তা-ইলিশ খাচ্ছেন তারা। সাংস্কৃতিক কলেজে মূল মঞ্চের সামনের নারী-পুরুষ শিশুসহ সেখানেও মানুষের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে।

সাংস্কৃতিক কলেজে আশেপাশে ঘুরে ক্লান্ত হয়ে মানুষ আনন্দের সঙ্গে গ্রহণ করছে বিনামূল্যের এই পানি। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের এমন উদ্যোগ যেন পহেলা বৈশাখে ঘুরতে আসা মানুষের আনন্দকে নির্বিঘ্ন করছে।

এরই মধ্যে পরিবার-পরিজন এবং বন্ধুদের সঙ্গে সেলফি তুলতে ব্যস্ত তরুণ-তরুণীরা। নিজের স্মার্টফোনে বটমূলের ঐতিহ্যবাহী বর্ষবরণের স্মৃতি ধরে রাখছেন তারা।

শফিক আহমদ সিলেট নগরীর পাঠানটুলা থেকে স্ত্রী, দুই ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে এসেছেন সাংস্কৃতিক কলেজে বর্ষবরণের অনুষ্ঠান দেখতে।

তিনি সিএন নিউজকে বলেন, ‘সবদিন তো পরিবার নিয়ে বের হওয়া সম্ভব হয় না। আজ ছুটির দিন, তাই সবাইকে নিয়ে সাংস্কৃতিক কলেজেসহ সিলেটের বিভিন্ন স্থানে যাবো। নববর্ষ উদযাপন করব, আয়োজন দেখব না তা কি করে হয়!’

লাকী বেগম সিএন নিউজকে বলেন, ‘আমি প্রতিবছরই সাংস্কৃতিক কলেজে এই অনুষ্ঠানে আসি। এটা যেন আমাদের প্রাণের সঙ্গে মিশে গেছে।’

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *