রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৩

স্বামীকে বাঁচাতে সৌদি গেলেন স্ত্রী, পরে স্ত্রীকে বাঁচাতে মরিয়া স্বামী !

অনলাইন ডেস্কঃ সিএ
দিনমজুর স্বামীর সংসারে সচ্ছলতা আনতে সৌদি আরব যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন সিলেটের গৃহবধূ রিপা বেগম।

সরকারি খরচে সৌদি আরবে নারী শ্রমিক নেওয়া হচ্ছে জেনে এ সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ৮ মার্চ একবুক স্বপ্ন নিয়ে সৌদি আরবের উদ্দেশে দেশ ছাড়েন, কিন্তু এরপরই দৃশ্যপট বদলে যায়। সৌদি আরবে পৌঁছার পরেই অত্যাচারের শুরু হয় রিপার ওপর। এক পর্যায়ে প্রাণে বাঁচার তাগিদে জাফলংয়ের পশ্চিম কালিনগর গ্রামে অবস্থান করা স্বামী মো. মুন্নাকে ফোন করে কান্নাকাটি শুরু করেন তিনি।

স্ত্রী রিপাকে সৌদি আরব পাঠাতে হামিদ ট্রাভেলস-এর ভূমিকার ব্যাপারে মো. মুন্না বলেন,হামিদ স্যার অভয় দিলে আমার ২০ বছরের স্ত্রী রিপা বেগমকে বিদেশে পাঠানোর জন্য সিদ্ধান্ত নেই।তিনি আমাকে বাধ্য করেন আমার স্ত্রী রিপাকে সৌদি আরবে পাঠাতে।

পুরো বিষয়টি স্ত্রী রিপাকে জানালে সে তার স্বামীকে হামিদ ট্রাভেলস এর সত্ত্বাধিকারী হামিদ আহমেদ এর হাত থেকে বাঁচানোর জন্য নিজে সৌদি আরব যাওয়ার ব্যাপারে রাজি হয়। এ ব্যাপারে মুন্না বলেন, ‘রিপাকে এসব বিষয় বলার পর সে আমাকে বাঁচাতে সৌদি আরবে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

১৭ মার্চ একাধিকবার চেষ্টা করার পর সৌদি আরবে অবস্থানকারী আরেক নারী (কফিল)-এর মাধ্যমে স্ত্রী সঙ্গে কথা বলতে সক্ষম হন মুন্না। সেসময় রিপা বেগম স্বামী মুন্নাকে বলেন- ‘তুমি বেটিকে (কফিল নারীকে) ফোন দিলে আরও মারে (মারধর করে)। আমারে খারাপ প্রস্তাব দেয় তারা। না হুনলে (শুনলে) মারে। আমারে যেলান (যেসব) কইয়া (বলে) সৌদি পাঠানো অইছে (হয়েছে) ইখানও (এখানে) ইতা (এগুলো) কোনটাই নাই।’ এদিকে সৌদি আরবে বাংলাদেশী নির্যাতন বাড়ছেই।সুত্রঃ newsi24

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *