বৃহস্পতিবার, জুন ২১

হোমনা প্রেস ক্লাবের বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত

আল্ আমিন শাহেদ-প্রধান প্রতিবেদকঃ-

আনন্দ উৎসবে সাংবাদিকরা মেতেছিল হোমনা প্রেস ক্লাবের বার্ষিক বনভোজনে।১০ মার্চ শুক্রবার চট্রগ্রাম জেলার মীরাসরাই মহামায়া লেক সীতাকন্ডু ইকো পার্কে এ বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়। হোমনা প্রেস ক্লাবের সদস্যবৃন্দ সারাদিন গান বাজনা ,আনন্দ উল্লাস আর হই হুল্লোর করে সময় অতিবাহিত করেন।

সকাল ৭ টায় সাংবাদিকদের এ বনভোজন উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় । উপজেলা মসজিদের সহকারী ইমাম মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস দোয়া পরিচালনা করেন । কিন্ত সাড়ে ৭টার দিকে যাত্রা শুরু করার কথা থাকলেও দৈনিক প্রথম আলোর সাংবাদিক এম মনিরুল ইসলামের নোট বুক হারিয়ে ফেলার কারনে প্রায় ১ ঘন্টা বিলম্বে প্রেস ক্লাব থেকে যাত্রা শুরু করতে হয়েছে। কিন্ত সমস্ত রাস্তা সিঙ্গার জীবন সঙ্গীত পরিবেশন করে সকলকে উজ্জিবিত করে রেখেছে।

এক কথা বলা চলে বনভোজন আয়োজনটি ছিল মনোমুগ্ধকর একটি অনুষ্ঠান। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কুমিল্লার পদুয়া বাজার থেকে উঠেন ক্লাবের সহ-সভাপতি দৈনিক নয়া দিগস্ত পত্রিকার প্রতিনিধি ফেরদৌস আবদুল্লাহ ও প্রচার সম্পাদক ও দৈনিক সমতটের কাগজ এর প্রতিনিধি মো.দেলোয়ার হোসেন । এর পর পৌনে এক ঘন্টা পর বাস পৌঁছে হোটেল সুইটে এখান থেকে চা বিরতির পর গাড়ী চলছে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে কিন্ত বাধসাথে তীব্র যানজট। প্রায় ১ ঘন্টা জ্যামে আটকে থাকলেও সিঙ্গার জীবনের গান সকলকে আনন্দের মধ্যে রেখেছে। বিশেষ করে মাধাইয়া সাদ্দাম, বিলাপ সঙ্গীত ও ভান্ডারী গানের ভিডিও ছিল উল্লেখযোগ্য ।

পরে ফেনী জেলার মহিপালনে যানজট থেকে মুক্তি পেতে পুলিশের ইন্সপেক্টর আঃআউয়াল এবং মো. আবুল কালাম আজাদ সাহেবের সহযোগীতায় বিকল্প রাস্তা দিয়ে যেতে উক্ত স্হানে পৌছায়। এতে প্রায় দেড় ঘন্টার সময় বেচে যায় । এর পর মীরাসরাই সদরে অবস্থিত ক্যাশে আল নূর এ যাত্রা বিরতি করে দুপুরের খাবার সমাপ্ত করা হয়েছে। এর পর আর যানজটে পড়তে হয়নি । প্রায় আড়াই টার দিকে মহামায়া লেকে পৌছে। সেখানে সকল সাংবাদিকবৃন্দ মেতে উঠেছিল এক অনন্য আনন্দে।

ইঞ্জিন চালিত বুটে চড়ে লেক ও ঝর্ণা দেখার আনন্দ থেকে বাদ পড়েনি সকল সাংবাদিক। আধা ঘন্টা সময় বেধে দিলেও ২ ঘন্টায় ও তারা গাড়ীতে ফিরে আসেনি । ঝর্ণায় গোসল করা বুটে ঘুরা ,সেলফি ও ভিডিও ও ফটো সেশনে ব্যস্ত থেকেছে সবাই । বিশেষ করে ক্লাবের সভাপতি আব্দুল হক সরকার নাকি ভুলেই গিয়েছিল তার বয়সের কথা। সে জানায় তিনি ভুলে গিয়ে ছিলাম আমার বয়সের কথা। মনে হয়েছিল ২৫ বছরের যুবক । বনভোজনে প্রাকৃতিক দৃশ্য আর গানের তালে নেচে গেয়ে একাকার হয়ে যান প্রবীণ নবীণ সকলে। সাংবাদিক আবুল কাশেম ভুইয়া ও কবি দেলোয়ার গানের ফাঁকে কৌতুক ও বারো মিশালী কবিতা আবৃতি করেন। এর পর বিকাল ৩ টার দিকে সীতাকুন্ডইকোপার্কে পৌছে সীতার মন্দির, ঝর্না দেখতে গিয়ে অনেকে ক্লান্ত হয়ে পরে ।

বিশ্রাম নিতে গিয়ে সন্ধ্যা ৭ টা ১০ এ হোমনার উদ্দেশ্যে রওয়া হতে হয় । কিন্ত দুঃখ জনক হলেও সত্য ফেনীতে এসে আবার সেই জ্যামে আটকা পড়ে যায় বনভোজনের বাসটি। তবু আনন্দের কোন ভাটা পড়েনি, গান বাজনা হৈ চৈ এর মধ্যে কোন সময় যেন ৩ ঘন্টা অতিবাহিত হয়ে যায় তা টের পাওয়া যায়নি । অবশেষে রাত সাড়ে ৩ টার দিকে হোমনাতে এসে পৌছতে পেরেছে । হোমনা প্রেস ক্লাব এর উদ্যোগে আয়োজিত বার্ষিক বনভোজনে যারা অংশ গ্রহন করেছেন তারা হলো- মো. আব্দুল হক সরকার(দৈনিক মানবজমিন), মো.জসিম উদ্দিন লিটন(সম্পাদক গ্রাম বাংলার খবর), ফেরদৌস আবদুল্লাহ (দৈনিক নয়াদিগন্ত), এম মনিরুল ইসলাম (দৈনিক প্রথম আলো), আমজাদ হোসেন সজল(দৈনিক সমকাল) এম এ কাশেম ভুইয়া দৈনিক সংবাদ) মো. সেলিম সরকার (দৈনিক দিন প্রতিদিন), আবদুস সালাম ভুইয়া( সম্পাদক হোমনার কন্ঠ) দেলোয়া হোসেন (দৈনিক সমতটের কাগজ) হাফেজ এনায়েত উল্লাহ (দৈনিক অপরাধ তথ্য) মো. নাজমুল হাছান (দৈনিক ডেসটিনি) মো. কবির হোসেন (দৈনিক পাঞ্জেরী) মো. তপন মিয়া সরকার(দৈনিক নয়া আলো) মো.সফিকুল ইসলাম মুন্না (দৈনিক রুপবানী) মো. হারুন অর রশিদ(দৈনিক বাংলাদেশ অর্থনীতি) মো. জাকারিয়া( দৈনিক আমাদের সময় ডট কম) মো. রুহুল আমিন জুয়েল (দর্পন নিউজ ২৪) মো. হুমায়ুন কবীর (গ্রাম বাংলার খবর), মো. হাফিজুল ইসলাম ( দৈনিক কুমিল্লার আলো) মো. মেয়াজ্জে হোসেন( গ্রাম বাংলার খবর ) মো. তরিকুল ইসলাম( দর্পন নিউজ২৪) কবি দেলোয়ার (দৈনিক স্বদেশ নিউজ)। প্রেস ক্লাবের কয়েক জন সদস্য এ বনভোজনে অংশ গ্রহন করতে পারেনি তাই তারা ফেইজবুকে লাইভ দেখে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন দৈনিক ইত্তেফাকের সাংবাদি কামাল হোসেন ,মো. আইয়ুব আলী, শফিকুল ইসলাম সেলিম, আল আমিন শাহেদ, উৎপল কুমার ভৌমিক ও আবু হানিফ আতিকুর রহমান ভুইয়া ও আমিনুল ইসলাম। বনভোজনে অতিথি হিসাবে ছিলেন বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির সহ সভাপতি ও হোমনা শাখার সভাপতি মো. হুমায়ুন কবীর ও তার ছেলে মো. শিহাব কবির, হোমনা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি সামসুদ্দিন খান দুলাল, হোমনা রেহানা মজিদ মহিলা কলেজের মো. রুস্তম আলী, বিশিষ্ট ফুটবলার মো. সাইদুর রহমান ,সমাজ সেবক মনিরুজ্জামান ও সিঙ্গার জীবন ও সভাপতি আবদুল হক সরকার এর ছেলে মো. আরিফুল হক তনিম , সহ সভাপতি ফেরদৌস আবদুল্লাহ এর ছেলে ওসামা বিন আবদুল্লাহ । হোমনা প্রেস ক্লাবের বার্ষিক বনভোজন সুন্দর ও সুশৃঙ্খল পরিবেশে সমাপ্ত হওয়ায় মহান আল্লাহ পাকের নিকট শুকরিয়া জ্ঞাপন করে বনভোজনে অংশ নেয়া সকল সদস্যদের প্রতি ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন প্রেসক্লাব এর সভাপতি মো. আবদুল হক সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন ভুইয়া লিটন ।
সাংবাদিক আল্ আমিন শাহেদের ছেলের পা ভেঙ্গে যাওয়ায় উক্ত বনভোজনে যেতে না পারায় সকলের নিকট ছেলের জন্য দোয়া চান।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *