শনিবার, আগস্ট ১৮

১৬০০ কোটি টাকার বিল বাকি সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছে- এমপি মানিক


রিজওয়ান মজুমদার গিলবাট:
বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল বাবদ বিদ্যুৎ বিভাগের পাওনা ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকার বেশি। এই পাওনা আদায়ে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করেছে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। সোমবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে এই সুপারিশ করা হয়।

জানতে চাইলে কমিটির সদস্য সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ মুহিবুর রহমান মানিক বলেন, বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিদ্যুৎ বিল বাবদ বকেয়া পাওনা ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকার বেশি। এই পাওনা আদায় নিয়ে যে ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে, কমিটি তাতে সন্তুষ্ট হয়নি। এ কারণে পাওনা আদায়ে আরও কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছে কমিটি। তিনি বলেন, বৈঠকে জানানো হয়, বিদ্যুতের সিস্টেম লস আগের চেয়ে ৫ শতাংশ কমে এখন ১২ শতাংশে এসেছে। এটি আরও কমিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে বলেছে কমিটি।

বৈঠক সূত্র জানায়, ছয়টি সংস্থা এখন দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ করছে। বিদ্যুতের সিস্টেম লস ক্রমান্বয়ে কমছে। বকেয়া আদায়ও বাড়ছে। কিন্তু সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও মন্ত্রণালয়ের কাছে বকেয়া ১ হাজার ৬৬৪ কোটি ছাড়িয়েছে। এই বকেয়া আদায় করা যাচ্ছে না। এর মধ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে পাওনা বেশি। বৈঠকে বিদ্যুৎ বিভাগ জানায়, বকেয়া বিলের বড় একটি অংশ সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদের কাছে। এসব প্রতিষ্ঠান রাতে সড়কে বিদ্যুৎ বাতি জ্বালায়। যে কারণে তাদের বেশি বিদ্যুৎ খরচ হয়। এসব সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হলে অনেক সড়ক অন্ধকার হয়ে যাবে, মানুষের ভোগান্তি বাড়বে। তাই ইচ্ছা করলেও অনেক সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের বিদ্যুতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হচ্ছে না।

কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, রফিকুল ইসলাম, মুহিবুর রহমান মানিক, মো. তাজুল ইসলাম ও সামশুল হক চৌধুরী বৈঠকে অংশ নেন।

Comments

comments

Powered by Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *