প্রচ্ছদ / ক্যাম্পাস / “জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড-২০২০”পেলেন চাটখিলের আয়েশা

“জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড-২০২০”পেলেন চাটখিলের আয়েশা

নিজস্ব প্রতিবেদক

“সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)” ও “ইয়াং বাংলা” আয়োজিত “জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড-২০২০” পেয়েছেন নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার কৃতি সন্তান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আয়েশা আক্তার ইতি।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ও লকডাউন চলাকালে সমাজের অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করায়
তাকে এই অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা এবং “ইয়াং বাংলা” এর মুখপাত্র সজীব ওয়াজেদ জয় চতুর্থ “জয় বাংলা অ্যাওয়ার্ডে” বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন এবং তাদের অভিনন্দন জানান।

আয়েশা আক্তার ইতি “ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ আর্মি” এর মুখপাত্র হিসেবে “Integrated Community Development” ক্যাটেগরির “Covid-19 Response” সাব-ক্যাটেগরিতে এই অ্যাওয়ার্ড পান। ওয়ার্ল্ড ইয়ুথ আর্মি ১৪ জেলায় ২৫ জন স্বেচ্ছাসেবীর মাধ্যমে প্রায় ৭০০ পরিবারের কাছে জরুরি খাদ্য ও অর্থ সহায়তা, রমজান ফুড প্যাক, ঈদ উপহার পৌঁছে দিয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ধাপ শুরু হওয়ায় বর্তমানে জনসচেতনতামূলক “পাবলিক অ্যাওয়ার্নেস ক্যাম্পেইন: মাস্ক আপ বাংলাদেশ” পরিচালনা করছে।

জানা যায় চলতি বছর ৩০টি সংগঠনের ৩০ জনকে ২টি ক্যাটাগরি ও ১৩টি সাব-ক্যাটাগরিতে জয় বাংলা অ্যাওয়ার্ডটি দেওয়া হয়েছে। প্রায় ৭০০টির অধিক সংগঠন আবেদন করে যাদের মধ্যে থেকে প্রাথমিক ১০৩টি ও পরবর্তীতে কাজের উপর ভিত্তি করে ৫০টি সেরা সংগঠনকে চূড়ান্তভাবে বাছাই করা হয়।

অ্যাওয়ার্ড অর্জন প্রসঙ্গে আয়েশা আক্তার ইতি বলেন, “অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তির জন্য আমরা কাজ করিনি। লকডাউনের সময় গ্রামের মানুষের দুঃখ-দুর্দশা দেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচিত শিক্ষক ও বড় ভাই-আপুদের পরামর্শে আমরা কাজ করা শুরু করি। মানুষের জন্য কাজ করার জন্য আমরা এত বড় সম্মাননা পেয়ে অত্যন্ত আনন্দিত। ইনশাআল্লাহ, এই অ্যাওয়ার্ড ভবিষ্যতে আমাদের দেশের জন্য নিঃস্বার্থে কাজ করতে অনুপ্রেরণা যোগাবে।”

বর্তমান প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা দিয়ে ইতি বলেন, “মানুষের জন্য কাজ করাটা আমাদের শুধু পছন্দই নয়, আমাদের দায়িত্বও। আমাদের সবারই সরকারের উপর দোষ চাপানো বা অভিযোগ করার স্বভাব রয়েছে। এই দেশ ও সমাজ আমাদের। কাজেই সরকারের উপর দোষ না চাপিয়ে সামাজিক সমস্যা সমাধানের চ্যালেঞ্জ নেওয়ার সাহস করতে হবে। তাহলে আমরাই পারব আমাদের বাংলাদেশকে আরও সুন্দর করে সাজাতে।”

উল্লেখ্য, সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) তত্ত্বাবধানে ২০১৪ সালের নভেম্বরে যাত্রা শুরু করে “ইয়াং বাংলা”। সেই থেকে প্রতি বছর সমাজ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাওয়া যুব উদ্যোক্তা ও সংগঠনকে অনুপ্রাণিত করতে প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে “জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড” দেওয়া হচ্ছে। ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত দেশ ও সমাজে অনবদ্য ভূমিকা রাখা ১৩০টি যুব সংগঠনকে সম্মাননা দিয়েছে “ইয়াং বাংলা”।

আয়েশা আক্তার ইতি নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার নোয়াখলা গ্রামের বাসিন্দা।তিনি কৃতিত্বের সাথে সোনাচাকা জীবনগর উচ্চ বিদ্যালয়, থেকে এস এস সি ও ঢাকার ধনিয়া কলেজ,থেকে ইন্টারমেডিয়েট পাশ করে বর্তমানে জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগে দ্বিতীয় বর্ষে পড়াশোনা করছেন।

করোনা কালীন সময়ে মানুষের বিপদে পাশে থেকে এই অ্যাওয়ার্ড অর্জনে তার পরিবার ও এলাকাবাসী গর্বিত।

এছাড়াও চেক করুন

Online Assignment Support and Help – Avoiding Mistakes in Your Mission

Assignment help is now welcome at the hub of prominent and superior assignment writing resources. …